আইডিয়ালে ওড়না নিষিদ্ধ নয়, হিজাব পরতে বলা হয়েছে


আইডিয়াল স্কুলের মতিঝিল এবং বনশ্রী শাখার মেয়েদের ওড়না পরতে নিষেধ করা হয়েছে বলে একটি খবর সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। এ বিষয়ে মুখ খুলেছেন মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ শাহান আরা।

মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) গণমাধ্যমকে তিনি জানান, ছাত্রীদের ওড়না বা হিজাব নিষিদ্ধ করা হয়নি। বরং ক্রস বেল্টের বাইরে অতিরিক্ত ওড়না নিয়ে স্কুলে আসতে বারণ করা হয়েছে।

শাহান আরা বলেন, কেউ যদি ক্রস বেল্টের পরিবর্তে ওড়না পরতে চায় তাহলে তাকে হিজাব পরতে হবে। এর বাইরে অতিরিক্ত ওড়না সাথে নিয়ে স্কুলে আসতে পারবেন না।

অধ্যক্ষ আরও বলেন, অনেকে বিষয়টি না বুঝে এক প্রকার গুজব ছড়াচ্ছে। ক্রস বেল্টের বাইরে মেয়েরা ওড়না পরিধান করত না। তারা সেটি পেঁচিয়ে রাখত। এই পেঁচিয়ে রাখা ওড়নাটিই শিক্ষার্থীদের পরতে বারণ করা হয়েছে। এটার পরিবর্তে তাদের হিজাব পরতে বলা হয়েছে। এর মাধ্যমে তাদের মাথাও ঢাকা থাকবে এবং শরীরও ঢাকা থাকবে। আর হিজাব কিংবা ক্রস বেল্টের মধ্যে যে কোন একটি শিক্ষার্থীদের ইচ্ছার উপর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। যার যেটি পছন্দ তাই পরিধান করবে বলেও জানান তিনি।

শাহান আরা বলেন, মেয়েদের ওড়না পরতে নিষেধ করার বিষয়টি সঠিক না। প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ৬ ফিট চওড়া ওড়না পরতে বলা হয়েছে, যেটি হিজাব আকারে শিক্ষার্থীরা পরিধান করে থাকে। অনেক শিক্ষার্থী হিজাবের সাথে অতিরিক্ত ওড়না নিয়ে আসে তাদের সেটি পরতে বারণ করা হয়েছে।

গত বছরই বিষয়টি শিক্ষার্থীদের জানানো হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, গত বছরের জুলাই মাসে এটি নোটিশ আকারে প্রকাশ করা হয়েছে। নোটিশে শিক্ষার্থীদের ড্রেস কোডের মধ্যে ক্রস বেল্ট এবং ৬ ফিট চওড়া ওড়নার কথা বলা হয়েছে। এটি সম্পূর্ণ মেয়েদের ইচ্ছা, কে কোনটি পরবে। তবে কেউ ক্রস বেল্ট কিংবা হিজাবের সাথে অতিরিক্ত ওড়না পরতে পারবে না।

Check Also

অবশেষে ধরা খেলেন ‘সার্জেন্ট ইমরান আমার বন্ধু’ লেখা সেই বাইকার

বাইকের পেছনে নেমপ্লেটে লেখা ‘সার্জেন্ট ইমরান আমার বন্ধু’। এমন একটি ছবি সামাজিক যোগাগাযোগমাধ্যমে সম্প্রতি ভাইরাল …