রাতে মুম্বাইয়ের রাস্তায় ক্যামেরাবন্দি অজয়কন্যা

তারকাদের সন্তানদের প্রতি গণমাধ্যমের মনোযোগ থাকে বরাবরই। আর বলিউড তারকা অজয় দেবগন ও কাজলের আদুরে কন্যা নিশা দেবগন পাপারাজ্জিপ্রিয়। সম্প্রতি এই তারকাকন্যাকে দেখা গেল ভারতের মুম্বাইয়ের বান্দ্রায়।

প্রায়ই বিভিন্ন স্থানে ঘুরে বেড়াতে দেখা যায় অজয়-কাজলকন্যাকে। সম্প্রতি মা কাজলের সঙ্গে মুম্বাই বিমানবন্দরে দেখা মেলে নিশার। এবার মুম্বাইয়ের রাস্তায় সম্ভবত ডিনার ডেটে বেরিয়েছিলেন তিনি। সঙ্গে ছিলেন তাঁর দেহরক্ষী। রাস্তা পার হয়ে গাড়িতে উঠতে গেলে পাপারাজ্জিদের ক্যামেরার ফ্ল্যাশ জ্বলে ওঠে।

এ সময় কালো টপস ও হট প্যান্ট পরিহিত দেখা যায় অজয়কন্যাকে। বেশ কয়েকটি ছবি ভাইরাল ভায়ানি তাঁর ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে পোস্ট করেন। এক ভক্ত মন্তব্য করেন, ‘খুব মিষ্টি ও আদুরে মেয়ে।’ আরেকজন লেখেন, ‘সুন্দর মেয়ে।’

তবে কেউ কেউ তাঁর পোশাকের সমালোচনাও করেছেন। এক নেটিজেন কটাক্ষ করে লেখেন, ‘তারকাদের সন্তানদের জন্য কোথাও ফুল প্যান্ট নেই, সব হাফ প্যান্ট।’ আরেকজন বিদ্রুপ করে লেখেন, ‘ও খুব আদুরে, কিন্তু ওর পোশাক…।’ রাগের ইমোকন যুক্ত করেন ওই নেটিজেন।

পোশাক নিয়ে প্রায়ই কটাক্ষের শিকার হন নিশা। তাঁর দাদু বীরু দেবগন গত বছরের মে মাসে মারা যান। তাঁর মৃত্যুতে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন পরিবারের সবাই। বাদ যাননি অজয়কন্যা নিশা দেবগনও। তবে বীরুর মৃত্যুর একদিন পর তোলা কয়েকটি ছবিকে কেন্দ্র করে শুরু হয় তুমুল আলোচনা। ওই ছবির কারণে অন্তর্জালে সমালোচনার মুখে পড়েন নিশা। তাঁর ছোট পোশাক নিয়ে চলছিল ট্রল।

মেয়ে নিশাকে নিয়ে ব্যাপক ট্রল হওয়া প্রসঙ্গে এর আগে হিন্দুস্তান টাইমসকে অজয় বলেন, “যাঁরা সমালোচনা করছেন, তাঁরা আসলেই জানেন না যে কী হচ্ছে। আমি আপনাদের একটি উদাহরণ দিতে পারি। এর আগে এ নিয়ে আমি কথা বলিনি। আমি যখন বাবাকে হারালাম, তার পরের দিন বাচ্চারা খুব ব্যথিত ছিল। নিশা বুঝতে পারছিল পরিস্থিতি কেমন। আমি তাকে ডেকে বললাম ভেঙে না পড়তে। নিশাকে বললাম, ‘তুমি কেন বাইরে যাচ্ছ না? কিছু একটা করে এরপর আসো, প্রয়োজনে কিছু খেয়ে আসো।’ নিশা আমাকে জানাল, সে যাবে না। আমি তাকে বললাম, ‘তুমি যাও, এতে মন পরিবর্তন হবে। বাসার অতিথিদের আমরা সামলাচ্ছি।’ সে জানত না, যে কোথায় যাবে। একসময় সে বাইরে বের হয় এবং একটি পার্লারে যায়। আমি তাকে বলেছিলাম, বাইরে গিয়ে চুল ওয়াশ করতে বা এ রকম কিছু। নিশা পার্লারে প্রবেশের সময় পাপারাজ্জিরা তার ছবি তোলেন। এমনকি বের হওয়ার সময়ও তাঁরা ছবি তোলেন। এর পর তাঁরা নিশাকে এই বলে কটাক্ষ করতে থাকেন যে, ‘সবেমাত্র দাদা মারা গেল অথচ নিশা পার্লারে।’ এ রকম করার অধিকার তাঁদের আছে? ভালো অনুভব করতে আমি নিশাকে পাঠিয়েছি। সে মানসিক যন্ত্রণার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। ওইসব কথা বলার তাঁদের কি অধিকার আছে? এটি ভয়ংকর। এর পরে নিশা কাঁদতে কাঁদতে ফিরে আসে। সে যখন বাড়িতে ফিরে এসেছে, ততক্ষণে তার ছবিগুলো ছড়িয়ে পড়েছে। এ ধরনের কার্যকলাপ বাচ্চাদের ক্ষতিগ্রস্ত করে। বাচ্চারা কী অপরাধ করেছে? ৯, ১০, ১৫ বছর বয়সী বাচ্চাদের বিচার করা শুরু করেছেন তাঁরা।”

নিশা তাঁর ভিন্নধারার পোশাক ও স্বতন্ত্র ভঙ্গিমা দিয়ে এরই মধ্যে অনেকের মন জয় করে নিয়েছেন। এ দিনও তাঁর পোশাকে ছিল ভিন্নতা। নিশা এখন সিঙ্গাপুরে পড়াশোনা করছেন। তবে প্রায়ই ভারতের মুম্বাইয়ে পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটিয়ে থাকেন তিনি।

নিশার বাবা অজয় ও মা কাজলকে আগামীতে ‘তানহাজি : দ্য আনসাং হিরো’ ছবিতে অভিনয় করতে দেখা যাবে। ছবিটি যৌথভাবে পরিচালনা করছে অজয় দেবগনের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান এফ ফিল্মস ও  টি সিরিজ। ওম রাউতের পরিচালনায় ছবিটি মুক্তি পাবে ১০ জানুয়ারি।

Check Also

স্ত্রী মিথিলার বোনদের নিয়ে আড্ডায় মেতেছেন সৃজিত

কলকাতার নির্মাতা সৃজিত মুখার্জি ও বাংলাদেশের মডেল, অভিনেত্রী মিথিলা বিয়ে করেছেন গত ৬ ডিসেম্বর। বর্তমানে …