রুমে কাঁদছিলেন হৃতিক, জানালেন বাবা রাকেশ

বলিউডের হ্যান্ডসাম হিরোদের তালিকায় সুপারস্টার হৃতিক রোশনের নাম ওপরের দিকেই থাকে। হৃতিক অভিনীত ২০০০ সালের শুরুতে মুক্তি পাওয়া ‘কাহো না পেয়ার হ্যায়’ তাঁকে এনে দিয়েছিল আকাশচুম্বী জনপ্রিয়তা। অভিষেকেই নিজের জাত চিনিয়ে বুঝিয়ে দিয়েছিলেন, বলিউডে দীর্ঘদিন রাজত্ব করতে এসেছেন তিনি। তবে এবার তাঁর বাবা, প্রখ্যাত পরিচালক রাকেশ রোশন প্রকাশ্যে আনলেন বেশ অবাক করার মতো একটি ঘটনা।

হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে জানা যায়, সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকারে মুখোমুখি হন রাকেশ। সেখানে তিনি বলেন, “আমি এখনো ঘটনাটি মনে করতে পারি। ‘কাহো না পেয়ার হ্যায়’ মুক্তি পাওয়ার তিন-চার মাস পরে একদিন হৃতিক রুমে কাঁদছিল। সে বলছিল, ‘আমি এসব নিয়ন্ত্রণ করতে পারব না, কাজ করতে পারব না, আমি স্টুডিওতে যেতে পারব না। বাস ভরে ছেলেমেয়েরা আমার সঙ্গে দেখা করতে আসে। আমি শেখার ও অভিনয়ের সুযোগ পাচ্ছি না। আমি কাজে মনোযোগ দিতে পারছি না।’ এরপর আমি তাঁকে বললাম, যদি এই পরিস্থিতি না আসত, তাহলে কী হতো? একে তোমার আশীর্বাদ হিসেবে নেওয়া উচিত। মানিয়ে নাও এবং কাজ করো। একে অভিশাপ হিসেবে নিও না। এ কথা বলার পর সে সবকিছু বুঝতে পারে।”

প্রখ্যাত পরিচালক-অভিনেতা রাকেশ রোশনের পরিচালনায় ‘কাহো না পেয়ার হ্যায়’ ছবিতে হৃতিককে দ্বৈত চরিত্রে দেখা যায়। তাঁর বিপরীতে আমিশা প্যাটেল প্রধান নারী চরিত্রে অভিনয় করেন।

ছবির গানগুলো এখনো অনেকের মুখে মুখে। ছবিটি ২০০০ সালের সেরা ব্যবসাসফল ছবির তকমা পায়। ৯২টি পুরস্কার জমা পড়ে ছবিটির ঝুলিতে। এক বছরে সর্বাধিক পুরস্কারের জন্য ‘গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস’-এ নাম ওঠে দর্শকপ্রিয় ছবিটির। এই ছবির সুবাদে ফিল্মফেয়ারে হৃতিক ও আমিশা সেরা নবাগতের সম্মাননা পান। ওই বছরের শ্রেষ্ঠ ছবির পুরস্কার পায় ‘কাহো না পেয়ার হ্যায়’।

হৃতিক অভিনীত ‘সুপার থার্টি’ ও ‘ওয়ার’ বক্স অফিসে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। তিনি এখন ইয়াশ রাজ ফিল্মস প্রযোজিত ‘ওয়ার’-এর সিক্যুয়েলে অভিনয়ের অপেক্ষায় আছেন। এ ছাড়া হৃতিকের বাবা, প্রখ্যাত অভিনেতা ও পরিচালক রাকেশ রোশনের পরিচালনায় ‘কৃষ ফোর’-এ অভিনয়ের কথা রয়েছে তাঁর।

Check Also

পুরুষের প্লাস্টিক সার্জারি নিয়ে কেন কোনও কথা হয় না?

বলিউডের অভিনেত্রীদের মধ্যে প্রথম ‘লিপ জব’ করানোর সাহস দেখিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। তাই মিস ওয়ার্ল্ড জয়ী …