করোনাভাইরাসের এই সময় যৌন সম্পর্ক করা কি ঠিক?

করোনাভাইরাস মারাত্মক আকারে ছড়িয়ে পড়ার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এটিকে মহামারি হিসেবে ঘোষণা করেছে। সংক্রমণকে নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধের জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (CDC) সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মানুষকে আহ্বান জানিয়েছে। এইসময় হ্যান্ডশেক এবং আলিঙ্গন করাও নিষেধ। প্রশ্ন জাগতে পারে, তাহলে করোনাভাইরাসের এই সময় যৌন মিলন করা নিরাপদ?

করোনা ভাইরাস সংক্রামিত ব্যক্তির নাক ও মুখের লালা রসের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। হাঁচি বা কাশি থেকে নিঃসৃত লালা রসের মাধ্যমে ছড়িয়ে যেতে পারে জীবাণু। এটি এক ব্যক্তি থেকে অন্য ব্যক্তির মধ্যে স্থানান্তরিত হয়, সাধারণত যারা একে অপরের থেকে ৩ অথবা ৬ ফুটের মধ্যে থাকে। সুতরাং, যখন কোনও সংক্রামিত ব্যক্তি তার সঙ্গীকে চুম্বন করে তখন তার সঙ্গীর রোগ সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে যায়।

যৌন মিলনের সময় গাঢ় চুম্বনের মাধ্যমে লালা রস বিনিময় হয়। তাই, এটি ভাইরাস সংক্রমণ হওয়ার ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলতে পারে। করোনা ভাইরাস সহবাসের সময় সংক্রামিত হতে পারে- যদিও এখনও পর্যন্ত এইধরনের কোনও প্রমাণ নেই। কোভিড-১৯ প্রাথমিকভাবে সংক্রামিত ব্যক্তির কাশি বা হাঁচি এবং দ্বিতীয়ত, ভাইরাস দ্বারা দূষিত হওয়া কোনও বস্তুর পৃষ্ঠকে স্পর্শ করলেই ছড়াতে পারে। সুতরাং, চুম্বন করার সময় ভাইরাস লালার মাধ্যমে সংক্রামিত হতে পারে। আপনি বা আপনার সঙ্গী যদি ভাইরাস দ্বারা সংক্রামিত হয়ে থাকেন তবে, যতটা সম্ভব সংক্রামিত ব্যক্তির কাছ থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করুন এবং কোনোরকম শারীরিক ঘনিষ্ঠতা থেকেও নিজেকে বিরত রাখুন।

সেক্ষেত্রে যৌন চাহিদা পূরণের ক্ষেত্রে অন্যান্য বিকল্প পথ খুঁজে নিতে পারেন। আপনার ও আপনার সঙ্গীর মধ্যে যদি করোনাভাইরাসের উপসর্গ থাকে তবে যৌনতা এড়িয়ে চলুন এবং নিজেকে সামাজিক দূরত্বে রাখুন। এক্ষেত্রে যৌনতা প্রকাশের বিকল্প দিকগুলো বিবেচনা করুন। নিজেকে সুস্থ ও সুরক্ষিত রাখতে সঙ্গীর সাথে শারীরিকভাবে ঘনিষ্ঠ হওয়া বা চুম্বন এড়ানো অত্যন্ত প্রয়োজন। যৌন সম্পর্ক এড়াতে বই পড়া, টেলিভিশন দেখা, মোবাইলে গেমস খেলার মতো বিষয়গুলো বেছে নিন।

Check Also

যে ৮ কারনে সহবাসের পর পেট ব্যাথা হয়

দেখা যায়, বিবাহ পরবর্তী জীবনে বেশ কয়েকবার মিলনের পরেও সঙ্গমের সময় নারীদের ব্যথা লাগে। নিউ …