করোনা পরিস্থিতিতে মায়ের মৃত্যু নিয়ে যা বললেন বাশার

জাতীয় ক্রিকেট দলের নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমানের ‘মা’ রিজিয়া বেগম না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন। শুক্রবার (২৭ মার্চ) মায়ের মৃত্যুর খবর ঢাকায় শুনেছেন বাশার। তবে মায়ের মুখটা শেষবারের মতো দেখার সৌভাগ্য হয়নি তার। কুষ্টিয়াতে হওয়া জানাজায়ও অংশ নিতে পারেননি বাশার। ৭২ বছর বয়সে ইন্তেকাল করেন রিজিয়া বেগম। লম্বা সময় ধরে ভুগছিলেন বার্ধক্যজনিত নানা রোগে। তবে এই মৃত্যু নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। বাশারের মা কি করোনা ভাইরাসে আক্রান্তত হয়ে মারা গেলেন? এমন প্রশ্ন তুলেছেন কেউ কেউ।

তবে দেশের জাতীয় এক দৈনিককে বাশার জানিয়েছেন এসব প্রশ্ন অবান্তর। তিনি বলেন, ‘এসব কথা মোটেও সত্যি নয়। আমার মায়ের মৃত্যু হয়েছে বার্ধক্যজনিত রোগের কারণে। তিনি অনেক বছর থেকেই হুইল চেয়ারে। শেষ কয়েক মাস ধরে ছিলেন বিছানাতে। আর আমি তার মারা যাওয়ার দুই দিন আগেই কুষ্টিয়া থেকে ঢাকায় ফিরেছি।’ মৃত্যু সংবাদ পেয়ে ঢাকা থেকে ফের কুষ্টিয়া কেন যননি তাও খোলাসা করেছেন বাশার। তিনি বলেন, ‘আমি যখন কুষ্টিয়ায় ছিলাম তখন এক আত্মীয়ের জানাজাতে অংশ নেই। সেখানে অনেক মানুষ ছিল। তাদের সঙ্গে আমার দেখা হয়েছে, কথা বলতে হয়েছে। তাই ঢাকায় ফিরে আমি ছিলাম হোম কোয়ারেন্টিনে। বাসা থেকে বের হচ্ছিলাম না। আর আমি ঢাকা থেকে আবার কুষ্টিয়া গিয়ে মাকে দেখতেও পারতাম না, জানাজাও দিতে পারতাম না। তাই বাসা থেকে বলেছে যেহেতু কবর দেয়া হয়ে যাবে, পরে সুবিধামতো কুষ্টিয়া যাওয়ার জন্য।’ আমি আবারও বলছি আমার মায়ের অন্য কোনো সমস্যা ছিল না। তার স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। যারা এসব লিখছে তারা ভুল করছে।’ সূত্র: মানবজমিন

Check Also

নতুন জীবনের সূচনা করলেন মেহেদী

বাংলাদেশ ক্রিকেটে যেন পড়েছে বিয়ের ধুম। একের পর এক বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন অনেক ক্রিকেটার। মোসাদ্দেক, …