বিছানায় বসে অফিসের কাজ? জেনে নিন কী ক্ষতি করছেন!

লকডাউনের দিনগুলোতে অফিসে যাওয়ার সুযোগ নেই। কিন্তু বাসায় বসে অফিসের কাজ করার সুযোগ আছে অনেকেরই। বাসা আর অফিস দুটি সম্পূর্ণ ভিন্ন পরিবেশ। আর এই দুই পরিবেশকে এক করে সেখানে বসেই গুরুত্বপূর্ণ কাজ করা খুব সহজ বিষয় নয়।

বাসায় অফিসের মতো চেয়ার-টেবিলে বসে কাজ করা হয় না অনেকেরই। দিনভর ল্যাপটপে ঘাড় গুঁজে কাজ তাও আবার বিছানায় বসে। এদিকে ঘাড় আর কোমরের যে বারোটা বাজাচ্ছেন, সেই খেয়াল কি আছে?

গবেষণা বলছে, বিছানায় বসে ল্যাপটপ নিয়ে কাজ করলে আপনার শরীরের ওপর নেতিবাচক প্রভাব পড়তে বাধ্য। শুধু ল্যাপটপ না, খাটে বা বিছানায় বসে বই পড়তেও না করেন চিকিৎসকেরা।

বিছানায় বসে কাজ করলে পেছনে সাপোর্ট দেওয়ার মতো কিছু থাকে না, আপনি বালিশ হেলান দিয়ে কাজ চালাতে পারেন, কিন্তু শরীরের জন্য তা মোটেও কার্যকর নয়।

বিছানায় বসে কাজ করলে আপনি নিজের অজান্তেই সামনের দিকে ঝুঁকে পড়েন, এটা স্পাইন বা শিরদাঁড়ার জন্য ভালো না। প্রথম দিকে শুধু ঘাড় ব্যথা, কোমর ব্যথা হবে, কিন্তু পরে কিন্তু স্লিপড ডিস্কও হতে পারে।

বিছানায় কাজ করলে ঘুম আর কাজের সময়ের মধ্যে কোনো ফারাক থাকে না। মস্তিষ্ক আমাদের দিয়ে যা করায় আমরা তাই করি। বিছানার সঙ্গে ঘুমের সরাসরি যোগ থাকে, ফলে বিছানায় বসে কাজ করলে ঘুম এবং কাজের ব্যঘাত ঘটে।

একান্তই যদি বিছানায় বসে কাজ করতে হয়, তাহলে পেছনে যথাযথ ব্যাক সাপোর্ট রাখবেন। ল্যাপটপটা বিছানা থেকে উঠিয়ে আপনার চোখের সমতলে আনতে হবে, যাতে আপনাকে ঝুঁকে পড়ে কাজ না করতে হয়। সোজা হয়ে বসে কাজ করবেন। মাথা ঘাড় আর শিরদাঁড়া যেন একই সমতলে থাকে।

একই ভঙ্গিতে বেশিক্ষণ টানা বসে থাকবেন না। কাজের মাঝে ছোট বিরতি নিয়ে মাঝেমাঝেই মিনিট পাঁচেকের জন্য হাঁটুন। আর সকাল-সন্ধ্যা আধাঘণ্টার মতো হালকা শরীরচর্চা করে নিলে আপনার উপকার হবে।

Check Also

সাত কারণে আনারস খাওয়া খুব জরুরি!

আনারস একটি মৌসুমি ফল। যা অসংখ্য পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ। শরীরে পানির ঘাটতি পুরণের সঙ্গে সঙ্গে আনারস …