করোনা রোগীর পালিয়ে বেড়ানো, খুঁজতে মোবাইল ট্রাকিং ও শেষ পরিণতি…

গাজীপুরের একটি কারখানায় কাজ করতেন ছবির এই মানুষটি। সেখানেই করোনাভাইরাস সংক্রমিত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হন তিনি। পরে তিনি গাজীপুর থেকে টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলায় নিজ এলাকায় পালিয়ে যান। এই ব্যক্তি নিজেকে লুকিয়ে রাখত অনেক কৌশল অবলম্বন করেছিলেন। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। উল্টো, তার মাধ্যমে অনেকে হয়তো ভয়াবহ এই রোগে আক্রান্ত হয়েছেন।

গত ৮ এপ্রিল আইইডিসিআর জানায়, শনাক্ত হওয়া করোনা রোগীদের মধ্যে দুজন টাঙ্গাইলের। তখন আক্রান্ত ব্যক্তিদের তথ্য নিতে গিয়ে মির্জাপুর উপজেলার এক স্বাস্থ্যকর্মী ছাড়া দ্বিতীয় আক্রান্ত ব্যক্তির কোনো তথ্য পাচ্ছিল না স্বাস্থ্য বিভাগ। জেলা থেকে পাঠানো করোনা নমুনার সব রিপোর্ট নেগেটিভ আসায় আক্রান্ত ব্যক্তির পরিচয় নিয়ে বিভ্রান্তিতে পড়ে টাঙ্গাইল জেলা সিভিল সার্জন অফিস।

পরে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগকে আইইডিসিআর থেকে সেই ব্যক্তির নাম, উপজেলা আর মোবাইল নম্বর দেওয়া হলে সন্ধানে নামে উপজেলা প্রশাসন। দীর্ঘ সময় চেষ্টার পর অবশেষে মোবাইল ট্র্যাকিং প্রযুক্তির মাধ্যমে এই ব্যক্তিকে খুঁজে বের করা হয়।

ওই ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হয়ে গাজীপুর থেকে পালিয়ে নিজ এলাকায় এসে আত্মগোপন করেছিলেন। তিনি ছিলেন টাঙ্গাইলের করোনা আক্রান্ত দ্বিতীয় ব্যক্তি এবং এ ভাইরাসে জেলার প্রথম মৃত্যুবরণকারী।

ঘাটাইলের ইউএনও অঞ্জন কুমার সরকার বলেন, ‘তিনি গাজীপুরের একটি কারখানায় কাজ করতেন। কাজের সুবাদে তিনি দীর্ঘদিন ধরে ওই এলাকাতেই বসবাস করতেন। গাজীপুরে থাকাবস্থায় জ্বর-সর্দি, কাশিতে আক্রান্ত হলে ঢাকায় আইইডিসিআরে তার নমুনা পরীক্ষা করান। এতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। বিষয়টি জানতে পেরে নিজ বাড়ি ঘাটাইল উপজেলা রসুলপুর ইউনিয়নে এসে মোবাইল বন্ধ করে রাখেন। বিষয়টি জানাজানি হলে মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে তার সন্ধান বের করা হয়। সেই রাতেই তাকে ঢাকায় চিকিৎসার জন্য পাঠিয়ে দেওয়া হয়। সেই সঙ্গে তার গ্রামের ১২০টি বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করা হয়।’

মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে ঢাকার কুয়েত-বাংলাদেশ মৈত্রী হাসাপাতালে ওই ব্যক্তি মারা যান।

এই ব্যক্তি আরও যে কত মানুষকে সংক্রমিত করেছেন, তা খোদা ভালো জানেন। দয়া করে কেউ এমনটা করবেন না। করোনার উপসর্গ দেখা দিয়ে আইইডিসিআরে যোগাযোগ করুন। করোনা ধরা পড়লে নিজেকে সবার থেকে আলাদা করুন। নিজে বাঁচুন, অন্যকে বাঁচার সুযোগ দিন। (লেখকের ফেসবুক থেকে নেওয়া)

Check Also

বরিশালের বিভিন্ন সড়কে ‘Sorry’ লেখা নিয়ে রহস্য!

বরিশাল নগরীর বেশ কয়েকটি সড়কে রঙ দিয়ে ইংরেজিতে ‘Sorry’ শব্দ লেখা নিয়ে ইতোমধ্যে রহস্যের সৃষ্টি …