Advertisements

ঢাকার ১১৩ এলাকায় ছড়িয়েছে করোনা, আক্রান্ত ৮৪৩

image-154533-1587248655 ঢাকার ১১৩ এলাকায় ছড়িয়েছে করোনা, আক্রান্ত ৮৪৩

মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্তের দিক থেকে এখনও শীর্ষে রাজধানী ঢাকা। মহানগরীর ১১৩টি এলাকায় করোনা ছড়িয়ে পড়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন ৮৪৩ জন। এ ছাড়া ঢাকা জেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৪ জন। শনিবার (১৮ এপ্রিল) সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) ওয়েবসাইট থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

রাজধানীতে সবচেয়ে বেশি করোনা ভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে ঘনবসতিপূর্ণ পুরান ঢাকায়। পুরান ঢাকার প্রায় সব জায়গাতেই করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে। সবচেয়ে বেশি শনাক্ত হয়েছে ওয়ারিতে। এখানে এখন পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছে মোট ২৮ জন। এরপরই আছে মিটফোর্ড। এখানে শনাক্ত ২৬ জন।

এদিকে রাজধানীতে পুরান ঢাকার পরই বেশি করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে মিরপুর এলাকায়। মিরপুরের বিভিন্ন সেক্টরে ৫০ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। মিরপুরের পরেই আছে মোহাম্মদপুর, এখানে শনাক্ত ৩৪ জন। এছাড়াও ধানমন্ডি, যাত্রাবাড়ী, লালবাগেও শনাক্তের সংখ্যা ২০ ছাড়িয়ে গেছে।

Advertisements

আইইডিসিআরের ওয়েবসাইট থেকে জানা গেছে, রাজধানীর আদাবরে পাঁচজন, আগারগাঁওয়ে পাঁচজন, আরমানিটোলায় একজন, আশকোনায় একজন, আজিমপুরে ১৩ জন, বাবুবাজারে ১১ জন, বাড্ডায় আটজন, বেইলি রোডে তিনজন, বনানীতে আটজন, বংশালে ১৬ জন, বানিয়ানগরকে একজন, বাসাবোতে ১৭ জন, বসুন্ধরায় ছয়জন, বেগুনবাড়িতে একজন, বেগমবাজারে একজন, বেড়িবাঁধে একজন, বারিধারায় একজন, বসিলাতে একজন, বুয়েট এলাকায় একজন, ধানমণ্ডির সেন্ট্রাল রোডে একজন, চাঁনখারপুলে সাতজন, চকবাজারে ১২ জন, ঢাকেশ্বরীতে একজন, ডেমরায় তিনজন, ধানমন্ডিতে ২১ জন, ধোলাইখালে একজন, দয়াগঞ্জে একজন, ইস্কাটনে ছয়জন, ফরিদবাগে একজন, ফার্মগেটে একজন, গেন্ডারিয়াতে ১৬ জন, গোরানে একজন, গ্রিনরোডে ১০ জন, গোপীবাগে তিনজন, গুলিস্তানে তিনজন, গুলশানে ১৪ জন, হাতিরঝিলে একজন, হাতিরপুলে তিনজন, হাজারিবাগে ১৬ জন, ইসলামপুরে দুজন, জেলগেটে দুজন, যাত্রাবাড়ীতে ২৫ জন, ঝিগাতলায় পাঁচজন, জুরাইনে তিনজন, কল্যাণপুরে দুজন, কচুক্ষেতে একজন, কামরাঙ্গীরচরে চারজন, কাজীপাড়ায় তিনজন, কচুক্ষেতে একজন, কারওয়ানবাজারে একজন, খিলগাঁতে দুজন, কদমতলীতে দুজন, কোতোয়ালিতে চারজন, কুড়িলে একজন, কলতাবাজারে একজন, লালবাগে ২৩ জন, লক্ষ্মীবাজারে পাঁচজন, মালিবাগে চারজন, মানিকদিতে একজন, মাতুয়াইলে একজন, মালিটোলাতে একজন, মীরহাজারীবাগে দুজন, মিরপুর ৬ নম্বর সেকশনে তিনজন, মিরপুর ১০ নম্বরে সাতজন, মিরপুর ১১ নম্বরে ১৩ জন, মিরপুর ১২ নম্বরে ১১ জন, মিরপুর ১৩ নম্বরে দুজন, মিরপুর ১ নম্বরে আটজন, মিরপুর ১৪ নম্বরে ছয়জন, মিটফোর্ডে ২৬ জন, মগবাজারে ১১ জন, মহাখালীতে ১২ জন, মহনপুরে একজন, মোহাম্মদপুরে ৩৪ জন, মতিঝিলে একজন, মুগদায় তিনজন, নওয়াবপুরে একজন, নবাবগঞ্জে দুজন, নারিন্দায় তিনজন, নাখালপাড়ায় পাঁচজন, নিমতলিতে চারজন, নিকুঞ্জতে একজন, পীরেরবাগে দুজন, পুরানা পল্টনে দুজন, রাজারবাগে ১৩ জন, রামপুরাতে চারজন, রমনায় পাঁচজন, সবুজবাগে দুজন, সদরঘাটে একজন, রায়েরবাজারে একজন, সায়েদাবাদে একজন, শাহ আলীবাগে দুজন, শাহবাগে ছয়জন, সাইন্সল্যাবে একজন, শান্তিবাগে একজন, শাস্তিনগরে আটজন, শ্যামপুরে একজন, সোয়ারীঘাটে তিনজন, সিদ্ধেশ্বরীতে তিনজন, শাখারীবাজারে ১০ জন, শান্তিবাগে একজন, শ্যামলীতে আটজন, শেওড়াপাড়ায় একজন, শেখেরটেকে একজন, সিদ্ধেশ্বরীতে তিনজন, সূত্রাপুরে নয়জন, শনির আখড়ায় একজন, তেজগাঁওয়ে ১৬ জন, তেজতুরিবাজারে একজন, টোলারবাগে ১৯ জন, উর্দু রোডে একজন, উত্তরায় ২৩ জন, ভাটারায় একজন ও ওয়ারীতে ২৮ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, সরকারি হিসেবে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শনিবার পর্যন্ত ৮৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ১৪৪ জন। মোট সুস্থ হয়েছে ৬৬ জন।

Advertisements

Check Also

অভিজাত এলাকায় বিচরণ ডিজে নেহার, চলত উদ্যাম নৃত্য

ছবি: ভিডিও থেকে সংগৃহীত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে অতিরিক্ত মদপান করিয়ে ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় …