তৃতীয় স্বামীর সঙ্গে শ্রাবন্তীর বছর পার

গত বছরের ১৯ এপ্রিল তৃতীয়বারের মতো বিয়ের পিঁড়িতে বসেছিলেন ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। নায়িকার তৃতীয় স্বামীর নাম রোশন সিং। তিনি পেশায় ভারতের একটি বেসরকারি এয়ারলাইনস কোম্পানির কেবিন ক্রু সুপারভাইজার। এর পাশাপাশি রোশনের জিমের ব্যবসাও রয়েছে। বিয়েটা একেবারে ব্যক্তিগত পরিসরেই সেরেছিলেন রোশন-শ্রাবন্তী।

কলকাতায় চুপিসারে এনগেজমেন্ট পর্ব চুকিয়ে মূল অনুষ্ঠানের জন্য সপরিবারে পাঞ্জাবে গিয়েছিলেন নায়িকা। সেখানে স্বামী রোশন সিংয়ের আদি বাড়ি। বাঙালি এবং পাঞ্জাবি- এই দুই মতেই বিয়ে হয়েছিল শ্রাবন্তী-রোশনের। তখন থেকেই বিয়ে নিয়ে কম কটাক্ষ সহ্য করতে হয়নি অভিনেত্রীকে। তার আগের দুই বিয়ের প্রসঙ্গ টেনে সমালোচনায় মেতে উঠেছিলেন অনেকেই। বলেছিলেন, দেখা যাবে তৃতীয় বিয়ে কতদিন টেকে।

কিন্তু নিন্দুকের মুখে ছাই দিয়ে আনন্দপুরের বিলাসবহুল ফ্ল্যাটে রোশনের সঙ্গে একটা বছর কোনো ঝামেলা ছাড়াই কাটিয়ে দিলেন শ্রাবন্তী। তারা যে জমিয়ে সংসার করছেন, তা এই নায়িকা ও তার স্বামী রোশনের সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্টে চোখ রাখলেই বোঝা যায়। প্রায় তারা বিদেশ ভ্রমণে বেরিয়ে পড়েন। একান্তে কাটানো সেসব মুহূর্তের ছবি ইনস্টাগ্রামে শেয়ারও করেন।

ব্যতিক্রম হয়নি প্রথম বিবাহবার্ষিকীর বেলায়ও। বিবাহবার্ষিকীতে ভক্তদের আবদার মেটাতে গায়ে হলুদের কিছু ছবি শেয়ার করেছেন শ্রাবন্তী। তার একটির ক্যাপশনে রোশনকে উদ্দেশ্য করে নায়িকা লিখেছেন, ‘হ্যাপি অ্যানিভার্সারি জান।’ আরেকটি ছবির ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘এই মুহূর্ত চিরকাল ধরে রাখতে চাই।’ ছবিগুলোর নিচে আবার এক ভক্তের প্রশ্ন, ‘এক বছর পর গায়ে হলুদের ছবি, পরের বছর কী।’ যদিও তার কোনো উত্তর দেননি নায়িকা।

অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের প্রথম বিয়েটা হয়েছিল ২০০৩ সালে চলচ্চিত্র পরিচালক রাজিব বিশ্বাসের সঙ্গে। সেই সংসারে জন্ম হয় ছেলে ঝিনুকের। ছেলে বর্তমানে তার মায়ের সঙ্গেই থাকে। কিন্তু রাজের সঙ্গে থাকতে পারেননি শ্রাবন্তী। আট বছর সংসার করার পর ২০১১ সালে স্বামীর থেকে আলাদা হয়ে যান নায়িকা। ডিভোর্সের কারণ হিসেবে সে সময় রাজের বিরুদ্ধে একাধিক নারীর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্কের অভিযোগ এনেছিলেন শ্রাবন্তী।

এর চার বছর পর অর্থাৎ ২০১৫ সালে একটি বিজ্ঞাপনী সংস্থায় একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে মডেল কৃষেণ ব্রজের সঙ্গে সখ্যতা গড়ে ওঠে শ্রাবন্তীর। সেই সখ্যতা দ্রুতই প্রেমে রূপ নেয়। দুই বছর প্রেম করার পর ২০১৭ সালের জুলাইয়ে তারা বিয়ে করেন। কিন্তু মাত্র তিন মাস দ্বিতীয় স্বামীর সংসারে থেকেছিলেন নায়িকা। দীর্ঘদিন আলাদা থাকার পর শ্রাবন্তী-কৃষেণের পাকাপাকি ডিভোর্স হয় গত বছরের ১৫ জানুয়ারি।
সেই ডিভোর্সের মাস না গড়াতেই ভগ্নিপতির মাধ্যমে তৃতীয় স্বামী রোশন সিংয়ের সঙ্গে পরিচয় হয় শ্রাবন্তীর। কিছুদিন হাই হ্যালোর পর একসঙ্গে নৈশভোজে যেতে শুরু করেন তারা। রোশনের বাড়িতেও শ্রাবন্তীর যাতায়াত বাড়তে শুরু করে। তাতে ছড়িয়ে পড়ে তাদের বিয়ের গুঞ্জন। অবশেষে গত বছরের ১৯ এপ্রিল সেই গুঞ্জনকে সত্যি করে রোশনের সংসারে এন্ট্রি নেন নায়িকা।

Check Also

‘এ কেমন খেলা’য় মেতেছেন ইরফান-তিশা?

সাইকো থ্রিলার গল্পের একটি নাটকে জুটি বেঁধেছেন ছোট পর্দার অভিনেতা ইরফান সাজ্জাদ ও তাসনুভা তিশা। …