দরকারি জিনিস কিনতে বেরিয়ে বউ নিয়ে বাড়ি ফিরল যুবক!

লকডাউনের মধ্যে বাড়ির লোকজনদের বলেছিলেন নিত্যপ্রয়োজনীয় কিছু সামগ্রী কিনতে বের হচ্ছেন। মা ভেবেছিলেন ছেলে অত্যন্ত প্রয়োজনীয় জিনিস নিয়েই বাড়ি ফিরবে।

কিন্তু ছেলে বাড়ি ফেরার পর চক্ষু চড়কগাছ ভারতের উত্তরপ্রদেশের ওই যুবকের মায়ের। ছেলের ওপর তিনি এতটাই রেগে যান যে, সোজা থানায় অভিযোগ করতে চলে যান।

যুবকের মা জানান, তার ছেলে সকালে জানায় কিছু অত্যন্ত প্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে যাচ্ছে। সে অনুসারে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায় সে। কিছুক্ষণ পর বাড়ি ফেরে সে।

তখন ওই নারী দেখেন, তার ছেলের সঙ্গে রয়েছে নববধূর বেশে এক তরুণী। ছেলের কাছ থেকে তার পরিচয় জানতে চান ওই নারী। ছেলে তাকে জানায়, ওই তরুণীকে বিয়ে করে নিয়ে এসেছে সে।

ছেলে দাবি করে, ওই তরুণী তার স্ত্রী এবং এটাই তরুণীর শ্বশুরবাড়ি। তবে আচমকা এমন কাউকে কিছু না জানিয়ে বিয়ের সিদ্ধান্ত মানতে রাজি নন ওই নারী। সে কারণে ওই তরুণীকে ছেলের স্ত্রী হিসেবে ঘরে ঢুকতে দেননি তিনি। দু’জনকে নিয়ে সোজা থানায় হাজির হয়েছেন।

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। তাতে দেখা যায়, মুখে মাস্ক পরে থানার সামনে একটি চেয়ারে বসে রয়েছেন ওই নারী। কিছুটা দূরে ঘোমটা দিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছে নববধূ এবং তার পাশে মাস্ক পরে দাঁড়িয়ে তার স্বামী।

ও্হিই নারীর দাবি, বিয়ের কোনো প্রমাণ দিতে পারেনি তার ছেলে। এমনকি কোন পুরোহিত তার বিয়ে দিয়েছেন, তাও বলতে পারছে না ওই যুবক। এই সমস্ত নানা প্রশ্নের উত্তর না পেলে যুবককে কিছুতেই নববধূ নিয়ে বাড়িতে ঢুকতে দেবেন না বলেই পণ করেছেন তিনি।

অগ্নিশর্মা মায়ের কাণ্ডকারখানা দেখে অবাক পুলিশকর্মী এবং প্রতিবেশীরা।

Check Also

গরমকালের বউ, মাত্র ২০ দিনের জন্য

মুসলিম পুরুষদের শর্ত সাপেক্ষে চার স্ত্রী গ্রহণের বিধান রয়েছে ইসলাম ধর্মে। তাই বলে কেবল গ্রীষ্মকালের …