মৃত্যুর আগে কোন উপসর্গ ছিলোনা শরীরে, অথচ ছিলো করোনা

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসনের ত্রাণ ও পূর্ণবাসন শাখার এক কর্মকর্তা করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বলে জানা গেছে। তবে তার শরীরে করোনা রোগের কোন উপসর্গ ছিলনা। কিন্তু মৃত্যুর পর টেস্ট করানো হলে তাতে তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

শনিবার (১৮ এপ্রিল) তার ছেলে মাজহারুল ইসলাম জানান, এর আগে ১৬ এপ্রিল তার বাবা মারা যান। ইতোমধ্যে জেলায় ২৪ জন করোনা আক্রান্তের মৃত্যু নিশ্চিত করেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। লক্ষণ না থাকলেও মারা যাওয়ার পর তাঁর করোনা পজেটিভ এসেছে।

মারা যাওয়া ওই ব্যক্তি ত্রাণ ও পুনর্বাসন শাখার বেতার যন্ত্রচালক ছিলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর। তিনি স্ত্রী, দুই মেয়ে ও এক ছেলে রেখে গেছেন।

মাজহারুল ইসলাম বলেন, ‘বাবার মৃত্যুর পর নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল। আমাদেরকে গতকাল (১৭ এপ্রিল) রাত সাড়ে ১১ টায় ফোন করে হাসপাতাল থেকে জানানো হয়েছে তার করোনা পজিটিভ ছিল। আজকে আমরা যাবার পর আমাদেরকে সকল কাগজপত্র (মৃত্যু সনদ) বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে এবং লাশ ঢাকায় দাফন করা হয়েছে।’

তিনি জানান, তার বাবার করোনা কোন উপসর্গই ছিলনা। তিনি সুস্থ ছিলেন। ১৫ এপ্রিল রাতে তিনি গ্যাসট্রিকের ব্যাথা অনুভব করলে ওষুধ খেতেন। এতে তার পেট খারাপ হলে ১৬ এপ্রিল সকাল ৬ টায় আমরা তাকে নিয়ে হাসপাতালে যাই। সকাল ৯ টায় তিনি মারা যান।

শনিবার (১৮ এপ্রিল) বিকেলে তার মৃত্যুতে নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ শামীম বেপারী স্বাক্ষরিত শোক বার্তায় জানানো হয়, বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় প্রো একটিভ মেডিকেল কলেজ এন্ড হসপিটাল লিমিটেডে থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় পথেই ইন্তেকাল করেন।

এদিকে নারায়ণগঞ্জে প্রথম এমন উপসর্গহীন করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যুর সংবাদে ভীতি ছড়িয়ে পড়েছে জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন দপ্তরে।

Check Also

বরিশালের বিভিন্ন সড়কে ‘Sorry’ লেখা নিয়ে রহস্য!

বরিশাল নগরীর বেশ কয়েকটি সড়কে রঙ দিয়ে ইংরেজিতে ‘Sorry’ শব্দ লেখা নিয়ে ইতোমধ্যে রহস্যের সৃষ্টি …