যাবার আগে যা বলে গেলেন ঋষি

‘সমাজের প্রত্যেক ভাই বোনের কাছে আমার একটি আবেদন, হিংসা-গণপ্রহার বা পাথর ছোড়া বন্ধ করুন। ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীরা নিজেদের জীবন বিপন্ন করে লড়ছেন, আপনাদের সুরক্ষার জন্য করোনার বিরুদ্ধে আমাদের একসঙ্গে লড়ে যেতে হবে।’ ২ এপ্রিল শেষবার টুইট বার্তায় এমনটাই বলেছিলেন ঋষি কাপুর।

এরপর অবশ্য বুধবার ইরফান খানের মৃত্যুর পর অভিনেতার শান্তি কামনায় টুইট করেছিলেন। কিন্তু ২৪ ঘণ্টা না পেরুতেই তিনিও না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন। ৩০ এপ্রিল সকালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বলিউডের বর্ষীয়ান অভিনেতা।

১৯৭০ সালে তার বাবা রাজ কাপুরের চলচ্চিত্র মেরা নাম জোকারে শিশুশিল্পী হিসেবে অভিনয়ে করে জাতীয় চলচ্চিত্রে পুরস্কার জিতে নেন।

নায়ক হিসেবে ‘ববি’ চলচ্চিত্রে ডিম্পল কাপাডিয়ার সাথে প্রথম প্রধান চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পান। এর মাধ্যমে ১৯৭৪ সালে ফিল্মফেয়ার শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার লাভ করেন। এই ছবির পর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি ঋষিকে।

Check Also

সেই অভিনেত্রী করলেন কী?

বলিউড অভিনেত্রী সানা খান। তবে কিছুদিন আগে শোবিজ জগত থেকে বিদায় নিয়েছেন। এরপর সম্প্রতি বিয়ের …