আকবরের পর আয়ানের দায়িত্ব নিলেন জায়েদ খান

রিকশাচালক থেকে সংগীতশিল্পী হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছিলেন যশোরের আকবর। জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ইত্যাদিতে ‘তোমার হাতপাখার বাতাসে’ শিরোনামের গান গেয়ে রাতারাতি তারকা খ্যাতি পান তিনি। সেই আকবর বর্তমানে অসুস্থ, ওষুধ কেনার টাকা নেই, ঘরে খাবার নেই। স্ত্রী ও একমাত্র কন্যাসন্তান নিয়ে উপোস থাকতে হচ্ছে প্রায়। কিছুদিন আগে এমন খবর পেয়ে তাঁর বাসায় ছুটে যান বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান। এবং তখন থেকেই তিনি আকবরের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এ নিয়ে গণমাধ্যমে খবরও প্রকাশ হয়।

এবার সহশিল্পী রিজিয়া আখতার বন্যার একমাত্র সন্তান তানভীর হোসেন আয়ানের সমস্ত দায়িত্ব নিয়েছেন জায়েদ খান। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে আয়ানকে নিয়ে তাঁর মা সহশিল্পী বন্যা এসে সমস্যার কথা তুলে ধরলে জায়েদ খান আয়ানকে ঈদের বকশিশ হিসেবে পাঁচ হাজার টাকা দেন, বন্যাকে দেন এক মাসের বাজার খরচ। এখন থেকে আয়ানের পড়াশোনা ও থাকা-খাওয়ার সব খরচ বহন করবেন জায়েদ। সমিতি নয়, আয়ানের দায়িত্ব তিনি নিজে পালন করবেন বলে এনটিভি অনলাইনকে জানিয়েছেন জায়েদ।

জায়েদ খান বলেন, ‘বন্যা আমাদের চলচ্চিত্র সহশিল্পী। গতকাল তাঁর ছেলে আয়ানকে নিয়ে এফডিসিতে এসেছিলেন। কী সুন্দর ফুটফুটে ছেলেটা। তাঁদের সমস্যা শুনে মনটা অনেক খারাপ হয়ে যায়। তারপর আমি আয়ানের সমস্ত দায়িত্ব নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিই। ওর মাকে সাহায্য করি। ছেলেটার হাতে পাঁচ হাজার টাকা গুঁজে দিই। এটা ঈদ সালামি। এখন থেকে আয়ানের পড়াশোনা, থাকা-খাওয়ার সমস্ত খরচ আমি বহন করব, সে বড় হওয়ার আগ পর্যন্ত। আমি এটা ব্যক্তিগত অর্থ দিয়ে করব। এটার সঙ্গে সমিতির কোনো যোগসূত্র নেই।’

জায়েদের কথা শুনে কেঁদে ফেলেন রিজিয়া আখতার বন্যা। এনটিভি অনলাইনকে তিনি বলেন, ‘আমার এই ছেলেটা আর বৃদ্ধ মা ছাড়া দুনিয়াতে কেউ নেই। সন্তান পৃথিবীতে আসার আগেই আমাদের ডিভোর্স হয়ে যায়। তিন বছর ধরে অনেক কষ্ট করে ছেলেকে বড় করছি। তার জন্মদাতা বাবা খবর রাখে না। অনেক কষ্টে যায় আমাদের দিন। একমাত্র লক্ষ্য ছেলেকে মানুষ করা। তবে সেই সামর্থ্য আমার নেই। জায়েদ খান দায়িত্ব নিয়েছেন আমার ছেলের। আয়ানের পড়াশোনা, থাকা-খাওয়া সব কিছু এখন থেকে দেখবেন তিনি। আমার ছেলে বড় হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি এই দায়িত্ব পালন করবেন। সবাই জায়েদ খানের জন্য দোয়া করবেন।’

‘আশা ভালোবাসা’, ‘কাজের মেয়ে’, ‘মৃত্যু যন্ত্রণা’সহ অসংখ্য চলচ্চিত্রে সহশিল্পী হিসেবে কাজ করেছেন বন্যার মা রাখি আখতার। মায়ের পথ ধরেই চলচ্চিত্র যাত্রা করেন বন্যা। ‘ধুমকেতু’, ‘ইঞ্চি ইঞ্চি প্রেম’, ‘পাংকু জামাই’সহ অসংখ্য চলচ্চিত্রে সহশিল্পী হিসেবে কাজ করেছেন তিনি। পাশাপাশি কাজ করেছেন নাটক ও বিজ্ঞাপনে। তবে সহশিল্পীরা দিনমজুরিতে এক-দুহাজার টাকা করে পেয়ে থাকেন। যে কারণে কোনোমতে সংসার চলে তাঁদের।

Check Also

বিয়ে বিচ্ছেদ নিয়ে ফের স্ট্যাটাস দিলেন শবনম ফারিয়া

বেশ কিছু কাজের পর ‘দেবী’ ছবিতে অন্য রকম সুনাম কুড়িয়েছিলেন অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া। টেলিভিশন ধারাবাহিক …