আমি না থাকলে ওর বান্ধবীরা ঘরে আসত : নওয়াজের স্ত্রী

বলিউডের তারকা অভিনেতা নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকি ও তাঁর স্ত্রী আলিয়ার বিচ্ছেদ এখন বিনোদন অঙ্গনের অন্যতম আলোচিত বিষয়। প্রতিদিনই আলিয়া নওয়াজুদ্দিনের ব্যাপারে নিত্যনতুন তথ্য জানাচ্ছেন সবাইকে। সম্প্রতি আলিয়া নওয়াজুদ্দিনের প্রেমের সম্পর্ক নিয়ে কথা বলেন।

বিনোদনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বলিউড বাবলের প্রতিবেদনে জানা যায়, সম্প্রতি আলিয়া জানান, নওয়াজুদ্দিনের ব্যবহারের কারণে কয়েক বছর ধরে আলাদা থাকছেন। প্রায় এক বছর আলিয়া তাঁর ছয় মাসের শিশুকে নিয়ে পাটলিপুত্রতে ভাড়া করা একটি ফ্ল্যাটে একা থেকেছেন। পরে অবশ্য নওয়াজুদ্দিনের কাছে ফিরেছিলেন।

স্পটবয়কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে আলিয়া বলেন, ‘সে আট মাস তার নবজাতকের সঙ্গে দেখা করতে যায়নি। কিন্তু যখনই আবার আমরা একে অপরের সঙ্গে সম্পৃক্ত হই, তখন আমি তার কাছে ফিরে যাওয়ার কথা ভাবি। সে কাজ পাওয়া শুরু করল, কিন্তু আমার হাতে তখনো কোনো অর্থ থাকত না। ছোট শিশুর দেখাশোনাও করতে হতো আমাকে। আমি ভাবলাম, আরেকবার চেষ্টা করে দেখা যাক, হয়তো সে বদলে যাবে। কিন্তু কিছুই বদলায়নি। এমনকি তাঁর খারাপ ব্যবহার আরো বেড়ে যায়।’

নওয়াজুদ্দিনের প্রেমের সম্পর্কের ব্যাপারে আলিয়া বলেন, ‘আমি ওর প্রেমের সম্পর্কের ব্যাপারে শুনতে থাকি। আমি বাসা থেকে বের হলে ওর মেয়ে বন্ধুরা বাসায় আসত। আমি তাকে এত পরিমাণে সহ্য করেছি যা একজন কল্পনাও করতে পারবে না। আর যারা তাকে এখন ছেড়ে যাওয়ার কারণ আমাকে জিজ্ঞেস করছেন, তাঁদের বলে দিতে চাই, আমি তাঁকে এর আগেও ছেড়ে দিয়েছিলাম। যখন তাঁর ক্যারিয়ারের সুসময় ছিল ও আমাদের দুটি সন্তান ছিল, তখনই আমি এমন পদক্ষেপ নিতে পেরেছিলাম; তাতে একজন বুঝবেন আমি কতটা বিরক্ত ছিলাম।’

এক দশক আগে নওয়াজের সঙ্গে বিয়ে হয় আলিয়ার। তাঁদের ঘরে দুই সন্তান রয়েছে। এই সপ্তাহের শুরুতে ই-মেইল ও হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে নওয়াজুদ্দিনকে ডিভোর্সের কাগজপত্র পাঠিয়েছেন আলিয়া। তবে আলিয়ার আইনজীবীর ভাষ্যমতে, উত্তর প্রদেশের বুধানাতে নিজের গ্রামের বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে থাকা নওয়াজুদ্দিন এ ব্যাপারে এখনো কোনো সাড়া দেননি।

Check Also

সেই অভিনেত্রী করলেন কী?

বলিউড অভিনেত্রী সানা খান। তবে কিছুদিন আগে শোবিজ জগত থেকে বিদায় নিয়েছেন। এরপর সম্প্রতি বিয়ের …