কিংবদন্তিদের গান শেখাতে চেয়ে ফের বিতর্কে নোবেল

কলকাতার সংগীত বিষয়ক রিয়েলিটি শো ‘সারেগামাপা’ দিয়ে জনপ্রিয়তা পান মাঈনুল আহসান নোবেল। সংগীত জীবনের শুরু থেকেই নানারকম সমালোচনার জন্ম দিয়েছেন তিনি। কখনো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কথিত প্রেমিকা কর্তৃক নিজের আপত্তিকর ছবি প্রকাশ, কখনো বা জাতীয় সঙ্গীত বিতর্ক। তবে অনেকদিন ধরেই ছিলেন সবরকম আলোচনার বাইরে। এবার দেশিয় সঙ্গীতের কিংবদন্তিদের গান শেখাতে চেয়ে ফের বিদ্রুপের মুখে পড়েছেন নোবেল। ২০২০ সালে মিউজিক কীভাবে করতে হয়, লিজেন্ডারি শিল্পীদের শেখাতে চেয়েছেন তিনি!

মঙ্গলবার (১৯ মে) নিজের ভ্যারিফাইড ফেসবুক হ্যান্ডেলে নোবেল লেখেন-

‘দু-বছর আগে জন্ম নিয়েছি আপনাদের ভালবাসা নিয়ে। দু-বছরে ফ্লপ/হিট গানের সংখ্যা দুই।

তোমার মনের ভেতর – অনুপম রায় (National Award winner)

আগুনপাখি – শান্তনু মৈত্র (National Award winner)

থুক্কু বাংলাদেশে তো গত ১০ বছরে ভালো করে কেউ মিউজিকই করেনি। দাঁড়াও তোমার লেজেন্ডদের না হয় আমিই শিখাবো, কিভাবে ২০২০ সালে মিউজিক করতে হয়।

ইতি
নোবেল’

তার এই পোস্টের পর অসংখ্য মানুষ সেখানে কমেন্ট করে। কমেন্টকারী সকলেই সেখানে নোবেলের ‘সংগীত-জ্ঞান’ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

এ ছাড়া ফেসবুকে আরও একটি পোস্ট করেছেন উঠতি এ সঙ্গীত শিল্পী। মঙ্গলবার রাত ১০টা ৪০ মিনিটে দেওয়া পোস্টে তিনি লেখেন-

‘আগের বার controversy তে ১ মিলিয়ন হয়েছিলো।

দেখি এইবার ২ মিলিয়ন হয় নাকি! সাব্সক্রাইব করে সাথে থাকুন! শিঘ্রই রিলিজ হচ্ছে #Tamasha ♥️

ইতি
নোবেল’

এর আগেও নানা ধরনের মন্তব্যের জন্য সমালোচনার মুখোমুখি হতে হয় নোবেলকে। গোপালগঞ্জ জন্ম নেওয়া নোবেল বছর খানেক আগে জাতীয় সংগীত নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করে নিন্দার মুখে পড়েছিলেন।তখন তার বিরুদ্ধে উঠেছে গান চুরির অভিযোগ উঠেছিল। নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ ও ইউটিউবে ‘দেশ’ শিরোনামের একটি গান প্রকাশ করেন নোবেল। যেখানে গানটির কথা ও সুর নিজের বলে দাবি করেন তিনি।

এরপরই নোবেলের এই গানটির বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ তোলে ব্যান্ডদল ‘অ্যাবাউট ডার্ক’। ফেসবুকে ব্যান্ডদলটির গিটারিস্ট ও গানটির লেখক নাসির উল্লাহর এক অভিযোগের প্রেক্ষিতে পরদিনই ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব থেকে গানটি সরিয়ে ফেলেন নোবেল।

Check Also

সেই অভিনেত্রী করলেন কী?

বলিউড অভিনেত্রী সানা খান। তবে কিছুদিন আগে শোবিজ জগত থেকে বিদায় নিয়েছেন। এরপর সম্প্রতি বিয়ের …