Advertisements

জাভেদ আখতারকে নিয়ে বিস্ফোরক কঙ্গনা

image-171691 জাভেদ আখতারকে নিয়ে বিস্ফোরক কঙ্গনা

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর বলিউডে স্বজনপোষণ বিতর্ক চরমে। কঙ্গনা রানাউত প্রথম এই বিষয় থেকে পর্দা সরান। সুশান্তের আত্মহত্যার পর নায়িকা বলেন, তাকেও আত্মহত্যায় প্ররোচিত করার চেষ্টা করেন বলিউডের প্রভাবশালীরা। শুক্রবার এক দীর্ঘ বক্তব্যে তিনি সরাসরি প্রশ্ন তোলেন, সুশান্তের আত্মহত্যার নেপথ্যে কেউ কী অনুঘটকের কাজ করেছে? কেন না, কঙ্গনার আশঙ্কা তিনি নিজের জীবনেও এমন পরিস্থিতির মোকাবিলা করেছেন।

এক্ষেত্রে তিনি বলিউডের কিংবদন্তি গীতিকার জাভেদ আখতারের প্রসঙ্গ টেনে আনেন। কঙ্গনা বলেন, ‘একদিন জাভেদ আখতার আমাকে তার বাড়িতে ডাকেন। তিনি বলেন রাকেশ রোশন আর তার পরিবার খুবই ক্ষমতাশালী। তোমার উচিত ওদের কাছে ক্ষমা চাওয়া। নইলে আমার কোথাও যাওয়ার নেই। আমাকে কারাবন্দি হতে হবে। আমি ধ্বংস হয়ে যাব।’

Advertisements

কঙ্গনা জানান, ‘আত্মহত্যা ছাড়া আমার আর কোনো পথ খোলা থাকবে না। এমনই কথা বলেছিলেন জাভেদ আখতার। ওনার বাড়িতে আমি কাঁপছিলাম।’ পাশাপাশি নায়িকা বলেন, মহেশ ভাটের কাছে কিছুদিন আগে কাজ চাইতে গিয়েছিলেন সুশান্ত। মহেশ কাজ তো দেনইনি, উল্টো তাকে অভিনেত্রী পারভিন ববির সঙ্গে তুলনা করেন। এ নিয়ে মহেশকে তুলোধুনা করেন কঙ্গনা।

এমন ঘটনার কথা বলে কঙ্গনার জিজ্ঞাসা, ‘সুশান্তকেও কি এমন কেউ ডেকে পাঠিয়েছিল? সুশান্তর মনে কোনো কিছু করার ভাবনা ছড়িয়ে দেয়ার পেছনে কেউ থাকতে পারে? আমি জানি না। কিন্তু এ ব্যাপারে আমি নিশ্চিত, আমার মতোই পরিস্থিতিতে পড়েছিলেন সুশান্ত।’

কঙ্গনা জানান, ‘অনেক আগে এক সাক্ষাৎকারে সুশান্ত বলেছিলেন, ইন্ডাস্ট্রিতে স্বজনপোষণ আর প্রতিভা একসঙ্গে থাকতে পারে না। স্বজনপোষণ কখনোই প্রতিভাকে উঠে আসতে দেবে না। কেন সুশান্ত এমন কথা বলেছিলেন, সেটা আমি বুঝতে পারি। তাই আমি জানতে চাই, এই পরিস্থিতিতে কে অনুঘটকের কাজ করেছিল?’

Advertisements

Check Also

আপ্লুত সুনেরা, জানালেন নিজের স্বর্গের ঠিকানা

সুনেরাহ বিনতে কামাল একদম নিজের জগতে যেখানে মন খুলে প্রাণ যা ইচ্ছে বলা যায়, করা …