সুশান্তের মরদেহের ছবি ছড়াল কে, প্রশ্ন স্বস্তিকার

খাটে সুশান্তের নিথর দেহ। সাদা চাদরে তার মুখ ঢাকা। ঘরভর্তি পুলিশ। তারা খুটিয়ে দেখছেন ঘরের চারপাশ। পুরোকার্যকলাপ মোবাইলে ভিডিও করে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়! কিন্তু কেন? কে-ই বা করল এমন কাজ? এ তো আইনত দণ্ডনীয়।

ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন সুশান্ত ভক্তরা। শুধু ভক্তরাই বা কেন? ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ করেছেন অভিনেতা স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ও।

সুশান্তের কো-স্টার স্বস্তিকা টুইটারে লেখেন, ইউটিউবে একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে সুশান্তের ঘরের ছবি। পাশে পুলিশ সদস্যরা কাজ করছেন। সুশান্তের মৃত্যুর পর ওই ঘরেই কেউ ফোন ব্যবহার করলেন কী করে? আর যদি করেও থাকেন মুম্বাই পুলিশ কেন সেই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করছে না? আর ভিডিওগুলোই বা ইউটিউব থেকে কেন তুলে নেওয়া হচ্ছে না?

গত ১৪ জুন সুশান্ত মারা যাওয়ার দিনেও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল তার মরদেহের ছবি। সেই ছবি শেয়ার করে চলছিল অবিরাম শোক প্রকাশ। সে সময় মহারাষ্ট্র পুলিশও ওই ছবি শেয়ার বা পোস্টের উপর জারি করেছিল নিষেধাজ্ঞা।

সাইবার সেলের পক্ষ থেকে টুইট করে বলা হয়েছিল, প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিংহ রাজপুতের কয়েকটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। এটা কুরুচিকর।

আইনি ব্যবস্থার হুঁশিয়ারিও ছিল পরের পোস্টেও, ‘ওই ধরনের ছবি ছড়ানো আইনি ও আদালতের নির্দেশিকা-বিরুদ্ধ। তাই এমন ঘটনা ঘটলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

তবে তাতে ফল হয়নি। সুশান্তের সেই ছবি-ভিডিও আজও সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল।

Check Also

কেমন আছেন জিতের প্রথম নায়িকা

টলিউডে এক ঝলকা টাটকা বাতাস এসেছিল ‘হঠাৎ বৃষ্টি’ ছবির হাত ধরে। ২০০২ সালে বাসু ভট্টাচার্যের …