ঘরোয়া তিন উপাদানেই জাদুর মতো দূর হবে বিরক্তিকর ব্ল্যাকহেডস!

সুন্দর, কোমল, মসৃণ ও উজ্জ্বল ত্বক পেতে কে না চায়। তবে নানা কারণেই আমাদের ত্বক ক্ষতির সম্মুখীন হয়। যদিও প্রত্যেকেই ত্বকের যত্নে বেশ তৎপর। তবে শুধুমাত্র বাইরে থেকে যত্ন নিলেই হবে না, ভেতর থেকেও যত্ন নেয়া জরুরি।

দেখা যায়, তৈলাক্ত ত্বক সাধারণত যে কোনো ত্বক-সম্পর্কিত সমস্যায় আগেভাগে জড়িয়ে পড়ে। অ্যাকনে, পিম্পল হোয়াইটহেড এবং ব্ল্যাকহেডের সমস্যা বেশি পরিমাণে হয়ে থাকে তৈলাক্ত ত্বকের অধিকারীদের। এর থেকে রক্ষা পেতে অনেকেই নানা দামি বিউটি প্রোডাক্টও কেনেন। যা হিতে বিপরীত ফল প্রকাশ করে। জানেন কি, সামান্য ঘরোয়া টোটকা ব্যবহার করেই এই সমস্যার হাত থেকে নিস্তার মিলবে। সাধারণত নাক, গাল এবং থুতনিতে ব্ল্যাকহেডসের সমস্যা বেশি হয়। এক্ষেত্রে রান্নাঘরের তিনটি উপাদান ব্ল্যাকহেডসের মতো বিরক্তিকর সমস্যা দূর করতে ম্যাজিকের মতো কাজে দেয়। দেরি না করে চলুন জেনে নেয়া যাক ব্ল্যাকহেডস দূর করার পদ্ধতি-

যা যা লাগবে

একটি কলা পেস্ট করে নেয়া, দুই টেবিল চামচ ওটসের গুঁড়া, ১ টেবিল চামচ মধু।

তৈরি ও ব্যবহার পদ্ধতি

প্রথমে একটি পাত্রে গুঁড়া করা ওটস নিন। ওর মধ্যে কলা এবং মধু দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি মুখের সব জায়গায় সমান ভাবে মেখে নিন। এবার গোলাকার ভাবে ৫ থেকে ৭ মিনিট হাল্কা হাতে ম্যাসাজ করুন। সবশেষে উষ্ণ গরম জল দিয়ে ধীরে ধীরে তুলে ফেলুন। এরপরে কোনো হালকা ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন।

মৃত কোষ দূর করতে এবং ময়লা পরিষ্কার করতে ওটসের জুড়ি মেলা ভার। মধু মশ্চারাইজিং উপাদান হিসেবে ত্বকের উপরে কাজ করে। এর মধ্যে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল উপাদান থাকে। কলার ত্বকের আর্দ্রতাকে ধরে রাখতে সাহায্য করে। এই সামান্য তিনটি উপাদানের ব্যবহারেই আপনি অন্য মাত্রায় সৌন্দর্য পেতে পারেন।

সূত্র: এনডিটিভি

Check Also

৬০ বছরেও তাদের ত্বক ৩০ এর মতো দেখানোর রহস্য

ঝকঝকে কাচের মতো মসৃণ ত্বক। বয়স যতই ঊর্ধ্বমুখী হোক, মুখে বিন্দুমাত্র রেখাপাত নেই। মানে মুখ …