প্রেমিকা ও পরিবারের পছন্দের পাত্রীকে একই সঙ্গে বিয়ে (ভিডিওসহ)

বিয়ের আসরে দুই কনে, কিন্তু বর একজন। সন্দীপ উইকি যে দুজনকে বিয়ে করেছেন, তার মধ্যে একজন তাঁর প্রেমিকা। অন্যজনকে তাঁর পরিবারের সদস্যরা পছন্দ করেছে।

প্রেমিক সুনন্দা আর বাবা-মায়ের পছন্দ করা শশীকলার সঙ্গে এক মণ্ডপে সাত পাকে বাঁধা পড়েন সন্দীপ। আর এ বিয়েতে সম্মতি দিয়েছে তিন পরিবারের সদস্যরা।

সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, ভারতের মধ্যপ্রদেশের বেতুল জেলা সদর থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে ঘোডাডোংরির কেরিয়া গ্রামের বাসিন্দা সন্দীপ। গত ৮ জুলাই দুই কনেকে একই আসরে বিয়ে করেন তিনি। তবে জেলা প্রশাসন বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে।

সন্দীপ একজন আদিবাসী যুবক। তিনি ধর্মীয় রীতি মেনে একই সঙ্গে দুই নারীকে বিয়ে করেছেন।

সন্দীপ যখন ভোপালে পড়াশোনা করতেন, তখন সুনন্দার সঙ্গে তাঁর পরিচয় হয়। কিন্তু এদিকে সন্দীপের পরিবার কোয়ালারি গ্রামের তরুণী শশীকলার সঙ্গে তাঁর বিয়ে ঠিক করে ফেলে।

দুই পাত্রীকে নিয়ে সন্দীপের পরিবারে অশান্তির সৃষ্টি হয়। ঝামেলা মেটাতে সন্দীপ দুই তরুণীর পরিবারকে ডাকে। বৈঠকে ঠিক করা হয়, দুই তরুণী যদি সন্দীপের সঙ্গে থাকতে রাজি হন, তাহলে তিনি দুজনকেই বিয়ে করতে পারবেন।

কেরিয়া গ্রামে বসে বিয়ের আসর। সন্দীপ দুই কনেকে অগ্নিসাক্ষী রেখে বিয়ে করেন। সেখানে গ্রামের লোকজন উপস্থিত ছিল। সন্দীপ এবং দুই কনের বাড়ির লোকও ছিল।

ঘোডাডোংরি জনপদ পঞ্চায়েতের সহসভাপতি মিশ্রিলাল পারাতে ছিলেন বিয়ের অন্যতম সাক্ষী। তিনি বলেন, তিনটি পরিবারেরই এই বিয়েতে কোনো আপত্তি নেই।

Check Also

১৪ পুরুষের সঙ্গে স্ত্রীর শারীরিক সম্পর্ক, ক্ষতিপূরণ চাইলেন স্বামী

পরকীয়ায় মেতে আছেন স্ত্রী। হঠাৎ এমন সন্দেহ হয় স্বামীর। এর জেরেই গোয়েন্দা দিয়ে খোঁজ-খবর নিলেন। …