বিয়ের ঋণ শোধ হয়নি, ‘মেয়েকে হত্যার’ খবর পেলেন বাবা!

ময়মনসিংহ জেলার ধোবাউড়া উপজেলা ঘোষগাঁও গ্রামে পাঁচ মাস আগে ধার-দেনা করে মেয়ের বিয়ে দিয়েছিলেন নাটকঘর বাইলেন এলাকার মুদি দোকানদার আব্দুছ ছামাদ। ঋণ এখনো শোধ করতে পারেননি তার আগেই মেয়ে লামিয়া লাইজুর (২০) মৃতের খবর জানায় শ্বশুর বাড়ির লোকজন। শনিবার (১৫ আগস্ট) বিকেলে ধোবাউড়ার ঘোষগাঁও এলাকার শ্বশুরবাড়ি থেকে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় লাইজুর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। রবিবার (১৬ আগস্ট) সকালে ময়নাতন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেলের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

চলতি বছরের ১১ মার্চ ধোবাউড়ার ঘোষগাঁও গ্রামের শাহাজ উদ্দিনের ছেলে মতিউর রহমান শরীফের (২৩) সঙ্গে বিয়ে হয় ময়মনসিংহ নগরীর নাটকঘর বাইলেনের কন্যা লামিয়া লাইজুর। বিয়ে সময় ধার-দেনা করে চার ভরি সোনা দেন আব্দুছ ছামাদ। তবে বিয়ের পর থেকে লাইজুর স্বামী ১০ লাখ টাকার জন্য চাপ দেয় বলে অভিযোগ করেন আব্দুছ ছামাদ। টাকা দিতে না পারায় মেয়েকে মেরে ফেলেছে বলে দাবিও করেন তিনি।

ধোবাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ জানান, এ ঘটনায় আত্মহত্যার প্ররোচণার অভিযোগে ধোবাউড়া থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। লাইজুর শ্বশুর শাহাজ উদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ময়নাদতন্তের রিপোর্টের পরিপ্রেক্ষিতে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেয়া বলেও জানান তিনি। এদিকে ঘটনার পর থেকে লাইজুর স্বামী ও শাশুড়ি পলাতক রয়েছে।

Check Also

আবারও মিয়ানমারের মানচিত্রে সেন্টমার্টিন!

দুইবছরের মাথায় সেন্টমার্টিন দ্বীপকে আবারও নিজেদের ভূমি দাবি করার সাহস দেখালো মিয়ানমার। এই নিয়ে দ্বিতীয়বারের …