মৃত্যুর পরও দিশার ফোন সক্রিয় ছিল!

বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর মামলা এখন তদন্ত করছে ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা (সিবিআই)। সুশান্তের সাবেক ম্যানেজার ছিলেন দিশা সেলিয়ান। পত্রপত্রিকার খবর, তাঁরা একে অন্যকে ভালোভাবে চিনতেন। তাঁদের মৃত্যু নিয়েও নানা খবর প্রকাশিত হয়েছে। কেউ কেউ বলছেন, দুজনের মৃত্যুর মধ্যে ‘সংযোগ’ রয়েছে।

নতুন খবর হলো, মৃত্যুর পরও নাকি দিশার ফোন সক্রিয় ছিল। জি নিউজের বরাত দিয়ে বিনোদনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বলিউড বাবলের প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, একটি ঘনিষ্ঠ সূত্রের দাবি, মৃত্যুর পরও এক সপ্তাহ দিশা সেলিয়ানের ফোন সক্রিয় ছিল। সূত্রটি জানায়, ওই ফোন থেকে ৯-১৭ জুন ইন্টারনেটের মাধ্যমেও কল করা হয়েছিল। কিন্তু কে ফোন করেছিল, তার হদিস মেলেনি।

কল রেকর্ড অনুযায়ী, ৬ জুন তিনটি কল আসে দিশার ফোনে। ৭ জুন রাত ১২টা ২ মিনিট ও ১২টা ৫৭ মিনিটে আলাদা স্থান থেকে দুটি কল আসে। একই দিনে দিশা ৩৬ বার কল করেন, এর মধ্যে তিনি বন্ধু একতার সঙ্গে কথা বলেন ১২টা ১০ মিনিটে। পুলিশ দিশার ফোন বাজেয়াপ্ত করেনি।

কয়েক দিন আগে সুশান্ত ও দিশার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট প্রকাশ পায়, তাতে প্রমাণিত হয় যে তাঁদের মধ্যে যোগাযোগ ছিল। পত্রপত্রিকার খবর, সুশান্তের সঙ্গে দিশার ব্র্যান্ড এনডোর্সমেন্ট নিয়ে কথা চালাচালি হয়েছিল। মাত্র দুমাস আগে দিশা ও সুশান্তের মৃত্যু হয়।

মুম্বাই পুলিশের দাবি, ৮ জুন একটি ভবন থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন দিশা সেলিয়ান। ১৪ জুন মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেন সুশান্ত সিং রাজপুত। বেশ কিছুদিন সুশান্তের ম্যানেজার ছিলেন দিশা।

Check Also

স্পা-তে গিয়ে গ্রেফতার অভিনেতা, যা বললেন তার স্ত্রী

‘রাস্তায় এখন ওকে দেখলে সবাই অভিনেতা নয়, অপরাধী হিসেবে দেখবে। ইন্ডাস্ট্রিতে ওর ভবিষ্যৎ অন্ধকার করে …