ডায়াবেটিস রোগীরা ওজন কমাতে ভাতের মাড় খেতে পারবেন?

ডায়াবেটিসে আক্রান্ত অধিকাংশ মানুষের শরীরের ওজন বেশি থাকে। গবেষণা বলছে, শরীরের ওজন ১০ শতাংশ হ্রাস করলে ব্লাড সুগার লেভেল অনেকটাই কমানো সম্ভব। আমরা সবাই জানি যে, ওজন কমানোর অন্যতম উপায় হলো স্বাস্থ্যসম্মত ডায়েট এবং নিয়মিত শরীরচর্চা। কিন্তু ওজন কমানোর জন্য এমন কিছু কৌশল এবং টিপস রয়েছে যা আপনার প্রাপ্তির ষোল আনাই পূর্ণ করবে।

এরকম একটি ঘরোয়া টিপস হলো ভাতের মাড়। চুল এবং ত্বকের যত্নে অনেকেই ভাতের মাড় ব্যবহার করেন। ভাতের মাড় কীভাবে আপনার অতিরিক্ত ওজন কমাবে? বিস্তারিত প্রকাশ করেছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

ভাতের মাড় একপ্রকার শক্তির উৎস
আপনার শক্তি বাড়াতে ভাতের মাড় দুর্দান্ত কাজ করে, এ কারণেই এটি অনেক মানুষের প্রতিদিন ডায়েটের একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। শরীরচর্চা করার আগে এক গ্লাস ভাতের মাড় অন্যতম পানীয়। শরীরচর্চার সময় ভাতের মাড় আপনার শক্তির মাত্রা বাড়িয়ে তুলবে।

হাইড্রেটেড রাখে
যখন আপনি ওজন কমানোর চেষ্টা করবেন, সেক্ষেত্রে নিজেকে হাইড্রেটেড রাখা খুব জরুরি। হাইড্রেশন আপনার শারীরিক কার্যাবলী ভালোভাবে চালিয়ে যেতে প্রধান ভূমিকা রাখে। ভাতের মাড় হাইড্রেটেড রাখতে সহায়তা করে।

হজম শক্তি বাড়ায়
স্বাভাবিক হজম প্রক্রিয়া ওজন কমাতে অতি প্রয়োজনীয়। হজম শক্তি কম হলে আপনি যতই স্বাস্থ্যসম্মত খাবার খান কিংবা শরীরচর্চা করুন, সেটি আপনার ওজন কমাতে বাঁধার কারণ হতে পারে। ভাতের মাড় আপানার হজম শক্তি বাড়াবে এবং এটি ডায়রিয়ার ক্ষেত্রেও উপকারী।

ডায়াবেটিস রোগীদের ভাতের মাড় খাওয়া উচিত?
এক কথায় একদমই না।ভাতের মাড় মূলত স্টার্চ জাতীয় খাদ্য এতে সুগার এবং কার্বস বেশি পরিমাণে থাকে যা আপনার ব্লাড সুগার লেভেল বাড়িয়ে তুলতে পারে। এমনকি রান্না করা ভাতও ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য খুব বেশি স্বাস্থ্যকর না।

Check Also

ওজন কমাতে কতটুকু লবণ খাবেন?

অতিরিক্ত ওজন থাকলে অবশ্যই তা কমিয়ে ফেলতে হবে। কারণ অতিরিক্ত ওজনের ফলে শরীরে বিভিন্ন ধরনের …