দুধের সাথে ঘুমের ট্যাবলেট মিশিয়ে পুত্রবধূকে ধর্ষণ করতো শ্বশুর

বগুড়ার শিবগঞ্জে পুত্রবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে শ্বশুরের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় সোমবার (৫ অক্টোবর) ঐ গৃহবধূ লম্পট শ্বশুরের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করলে তাকে আটক করে পুলিশ। আটক শ্বশুরের নাম মিলন মিয়া। সে উপজেলার বিহার ইউনিয়নের বিহার উত্তরপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বিহার ইউনিয়নের বিহার উত্তরপাড়া গ্রামের মিলন মিয়া তার ছেলে ট্রাক ড্রাইভার সাব্বির হোসেনের স্ত্রীর উপর কু-দৃষ্টি পরে। ছেলে বাড়িতে না থাকার সুযোগে লম্পট শ্বশুর মাঝে মধ্যেই গভীর রাতে ছেলের বউ এর শয়ন কক্ষে প্রবেশ করে শরীরের ম্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়। এতে টের পেয়ে পুত্রবধূ জেগে উঠলে শ্বশুর পালিয়ে যেত। মামলায় আরো উল্লেখ করেছেন যে, কৌশল পরিবর্তন করে লম্পট শ্বশুর তার পুত্রবধূকে গাভীর দুধের সাথে নেশা জাতীয় ঘুমের ট্যাবলেট মিশিয়ে দিতো। তার পুত্রবধূ দুধ পান করার পর গভীর ঘুমে পড়লে লম্পট শ্বশুর তার শয়ন কক্ষে প্রবেশ করে তাকে ধর্ষণ করতো। পুত্রবধূ সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠতে না পেরে বেলা ১২টার সময় ঘুম থেকে উঠত এবং তার কাপড় চোপড় এলোমেলো টের পায়। এতে পুত্রবধূর সন্দেহ হলে সে নিজেই কৌশলে ভিডিও মোবাইল ফোন দিয়ে ভিডিও রেকর্ড করার চেষ্টা করে। এ কপর্যায়ে গত ২৬ জুলাই গৃহবধূ শয়ন কক্ষে ঘুমানোর ভান করে থাকলে গভীর রাতে লম্পট শ্বশুর পুত্রবধূর শয়ন কক্ষে প্রবেশ করে তার পড়নের কাপড় খুলে ফেলে ধর্ষণ করতে থাকলে পুত্রবধূ সু-কৌশলে নিজেই আপত্তিকর অবস্থায় ভিডিও ধারণ করে। গরীব অসহায় তার বাবাকে সঙ্গে নিয়ে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিকট সমঝোতা প্রচেষ্টা ব্যর্থ হলে সোমবার গৃহবধূ তার লম্পট শ্বশুরের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করে। মামলার পরপরই থানা পুলিশ লম্পট শ্বশুরকে গ্রেফতার করে।

এ ব্যাপারে শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম বদিউজ্জামান বলেন, লম্পট শ্বশুর কর্তৃক গৃহবধূকে ধর্ষণের মামলা নেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যেই এ কার্যকলাপের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে শ্বশরকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

Check Also

`এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে সরকার বিবেচনা করতে পারে’

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি বলেছেন, দেশ, জাতি ও …