Advertisements

‘আমাকে পড়ে স্নাতক হতে পারবে না!’ খোলা পিঠের ছবি দিয়ে বলতেই তোপের মুখে নুসরত

image-1 ‘আমাকে পড়ে স্নাতক হতে পারবে না!’ খোলা পিঠের ছবি দিয়ে বলতেই তোপের মুখে নুসরত

বিতর্ক তাঁর পিছু ছাড়ে না। তিনিও কি বিতর্ক ছাড়া বাঁচতে পারেন? শুক্রবার রাতে ছবি আঁকার ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করতেই নুসরত জাহানকে লক্ষ্য করে ধেয়ে আসে নানা নেতিবাচক মন্তব্য। তারকা যদি শিল্পী হন, তাতেও যেন সমস্যা নেটাগরিকদের!

সেই রেশ কাটার আগেই শনিবার দুপুরে ফের নেট পাড়ায় আগুন জ্বালালেন তারকা সাংসদ, তাঁর পুরনো ছবি পোস্ট করে। লাল শাড়ি, লাল ব্যাকলেস চোলি। লাল অন্তর্বাস। চুল মাথার উপর তুলে ক্যাচারে আটকানো। চোখে রোদচশমা। সূর্যের দিকে মুখ করে দাঁড়ানো অভিনেত্রী যেন সূর্যমুখী! সব ছাপিয়ে নজর টেনেছে তাঁর মাখন গলা পিঠ, মুঠো মাপের কোমর। নুসরতকে জড়িয়ে আছে শীত রোদ। এটুকুই উষ্ণতা ছড়ানোর জন্য যথেষ্ট।

নেটাগরিকদের থেকে বাছা বাছা মন্তব্য শোনার জন্যও। নতুন ছবি শেয়ার হতেই প্রথমে চোখ কপালে। তার পরেই ঝাঁঝাঁলো বানভাসি মন্তব্য। কেমন মন্তব্যে বিদ্ধ হলেন সাংসদ-তারকা?

Advertisements

এক নেটাগরিকের আফসোস, ‘ধন্য পশ্চিমবঙ্গবাসী। এ রকম ট্যালেন্টেড সাংসদ পেয়েছে!’

huma-20201211180203-1 ‘আমাকে পড়ে স্নাতক হতে পারবে না!’ খোলা পিঠের ছবি দিয়ে বলতেই তোপের মুখে নুসরত

আরেক জন আরও চাঁচাছোলা, ‘কাজ একটু করুন। সাংসদ হয়ে কী করলেন? সাংসদের বেতন নিচ্ছেন মাসে ২.৫ লাখ। জনগণের টাকা সব তো মডেলিং করেই ওড়াচ্ছেন। পাঁচ বছর এ ভাবে মানুষের সর্বনাশ করবেন!!!’

চোখে বেঁধার মতো আপত্তিকর মন্তব্যও আছে অনেক। যদিও যাঁর ছবি দেখে নেট পাড়ার পড়শিদের ঘুম উড়েছে সেই নুসরতের কিন্তু এ সব নিয়ে একটুও মাথাব্যথা নেই। উল্টে ছবিতে ফলাও করে ক্যাপশন দিয়েছেন, ‘আমাকে পড়তে চেষ্টা কোরো না। স্নাতক হতে পারবে না!’

তারও হাতেগরম জবাব মিলেছে। এক নেটাগরিক কান এঁটো করা মন্তব্য লিখেছেন, ‘ঠিক আছে। কোনও সমস্যা নেই। আমি তো কেবল উচ্চমাধ্যমিক পাস!’

Advertisements

Check Also

বিয়ে আল্লাহর দেওয়া নেয়ামত: শবনম ফারিয়া

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি তামিমা তাম্মি নামে এক নারীকে বিয়ে করেন ‘ব্যাডবয়’ খ্যাত ক্রিকেটার নাসির হোসেন। …