Advertisements

ভালোবাসার সম্পর্ক স্থায়ী না ভেঙে যাবে? জানা যাবে এই ৫ লক্ষণে!

101931kiss-of-an-angel-jpg ভালোবাসার সম্পর্ক স্থায়ী না ভেঙে যাবে? জানা যাবে এই ৫ লক্ষণে!
সারা দিন ফোনে গল্প, একসঙ্গে থাকা, একে অপরের সঙ্গে ঝগড়া সাধারণত সম্পর্কে তো এমন হয়েই থাকে। কিন্তু এত কিছুর পরও নিজেদের ততটা কাছের মনে না হওয়া সম্পর্ককে খারাপ করতে পারে। অনেক সময়েই এমন হয় যে, অনেক কথা জমে যায় যা বলার জন্য দরকার পড়ে কোনও বন্ধুর। সময় কাটাতে ইচ্ছে করে একা একা। এমন হলে সবার প্রথমে দেখা উচিত সম্পর্কের ভিত ঠিক কীসের উপরে দাঁড়িয়ে আছে।

এমন হতেই পারে শুধুমাত্র শারীরিক আকর্ষণ থেকে সম্পর্ক চলছে। আদৌ এতে ভালোবাসা নেই। হতে পারে, দু’জন খুব ভালো বন্ধু কিন্তু সম্পর্কে ভালোবাসা ফিকে হয়ে গিয়েছে। সম্পর্ক কেমন অবস্থায় রয়েছে বা কীসের উপরে দাঁড়িয়ে রয়েছে, তা চিহ্নিত করা যেতে পারে সহজেই। তার জন্য কিছু বিষয় খেয়াল রাখতে হবে।

১ সময় কাটানোর মুহূর্তে নিজের উপস্থিতি, সাজগোজ নিয়ে অত্যধিক চিন্তিত হলে তা শারীরিক আকর্ষণ থেকে হতে পারে। শুধু সঙ্গীর সঙ্গে ডেটের সময়েই নয়, এমন যদি সব সময়েই হয়, তার মানে অন্যের চোখে নিজেকে আকর্ষণীয় করে তোলার ইনসিকিওরিটি কাজ করে চলেছে ভিতরে।

Advertisements

২. একসঙ্গে কোথাও খেতে নাও যাওয়া হতে পারে। তবুও সারাদিন একে অপরের সাথে সময় কাটানো যায়। কিন্তু কখনও ঘর থেকে বেরিয়ে হাঁটতে বা কোথাও খেতে যেতে ইচ্ছে করে না। এমন হলেও বুঝতে হবে সম্পর্ক শারীরিক চাহিদার উপরে দাঁড়িয়ে রয়েছে।

৩. দু’জনের পরিচিতি হয়তো অনেক বছরের বা অনেক দিনের। মিউচুয়াল ফ্রেন্ডও রয়েছে প্রচুর। সম্পর্কের বয়সও কম নয়। কিন্তু তাও কোথাও একটা খটকা রয়ে গিয়েছে। দু’জন দু’জনের ব্যাপারে সে ভাবে কিছু জানা নেই। জানার ইচ্ছেও কম। এমন হলেও কিন্তু নিজেদের বেশি সময় দেওয়া উচিৎ। না হলে সম্পর্কে সমস্যা হতে পারে। সম্পর্ক দীর্ঘস্থায়ী না-ও হতে পারে।

৪. কথা তাড়াতাড়ি শেষ করে ফেলা হতেই পারে যদি কেউ খুব তাড়াতাড়ি কথা বলে। হতে পারে বেশিক্ষণ এক জিনিসে আলোচনা পছন্দ নয়। তবুও, নিজেদের ব্যাপারে বা নিজেদের ভবিষ্যতের ব্যাপারে কথা বলতে গিয়ে যদি কারও খুব তাড়াতাড়ি সেই টপিক শেষ করে ফেলার প্রবণতা থাকে, তা হলে সেই নিয়ে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করা ভালো। এ ক্ষেত্রেও ধরে নেওয়া যেতেই পারে সম্পর্কের ভবিষ্যত নিয়ে চিন্তা না থাকা বা আলোচনা না করা সম্পর্ক নিয়ে সিরিয়াস না থাকার লক্ষণ।

৫. সম্পর্কে স্থিরতা না থাকাও বড় একটা সমস্যা। আজ ভালো লাগছে সব কিছু, কাল আবার ভালো লাগছে না। বা সম্পর্কের ভবিষ্যৎ নেই। কাল কে কোথায় থাকবে জানা নেই! কিন্তু সম্পর্ক থেকে বেরিয়েও আসা যাচ্ছে না। এমন হলে এই সম্পর্ক দাঁড়িয়ে থাকতে পারে শুধুমাত্র শারীরিক চাহিদার জন্য।

Advertisements

Check Also

শ্বশুরবাড়িতে যেসব কথা সরাসরি বলবেন না

শ্বশুরবাড়ি মানেই নতুন একটি পরিবেশ। যদিও মেয়েরা সেই নতুন পরিবেশে দ্রুতই মানিয়ে নেয়। কারণ সে …