Advertisements

মডেলিং দুনিয়ায় পা রাখলেন “অ্যাপল”এর সহ প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জবসের মেয়ে ইভ

k মডেলিং দুনিয়ায় পা রাখলেন "অ্যাপল''এর সহ প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জবসের মেয়ে ইভ

স্টিভ জবস, যাঁকে পার্সোনাল কম্পিউটার বিপ্লবের পথিকৃৎ বলা হয়। তিনি স্টিভ ওজনিয়াক এবং রোনাল্ড ওয়েন -এর সাথে ১৯৭৬ খ্রিষ্টাব্দে “অ্যাপল কম্পিউটার” প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি অ্যাপল ইনকর্পোরেশনের প্রতিষ্ঠাতাদের অন্যতম ও প্রাক্তন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। আজ ফের একবার তাঁরই ছোট মেয়ে ইভ-এর দৌলতে আলোচনায় উঠে এলেন তিনি।

মডেলিং দুনিয়ায় পা রাখলেন “অ্যাপল”এর সহ প্রতিষ্ঠাতা, সেই বিখ্যাত স্টিভ জবসের মেয়ে ইভ। সম্প্রতি একটি বিউটি ক্যাম্পেনে অংশ নিয়ে আলোচনায় উঠে এসেছেন।

l মডেলিং দুনিয়ায় পা রাখলেন "অ্যাপল''এর সহ প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জবসের মেয়ে ইভ

প্রসাধনী সংস্থা ‘গ্লোসিয়ার’-এর বিউটি ক্যাম্পেনের জন্য ‘বাথটাব’এ পোজ দিয়েছেন। নিজের ইনস্টাগ্রামে তারই বেশকিছু ছবি শেয়ারও করেছেন ইভ জবস।

294313-1282709792057139277882205817908018989995172n মডেলিং দুনিয়ায় পা রাখলেন "অ্যাপল''এর সহ প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জবসের মেয়ে ইভ

Advertisements

হাতে ওয়াইনের গ্লাস, গলায় সোনার চেন, নখ ও ঠোঁটে ‘গ্লোসিয়ার’-এর প্রসাধনীতে সেজে ক্যামেরার সামনে পোজ দিয়েছেন ইভ।

ইনস্টাগ্রামে ইভ জবসের অনুগামীর সংখ্যা দেড়লক্ষেরও বেশি। খুব স্বাভাবিক ভাবেই মডেলিং দুনিয়ায় পা রাখার সঙ্গে সঙ্গে আলোচনায় উঠে এসেছেন স্টিভ জবসের মেয়ে।

ইভ স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী, যেখানে তাঁর মা লরেন পাওয়েল এবং বাবা স্টিভের প্রথম সাক্ষাৎ হয়েছিল। ১৯৮৯ সালে স্টিভ স্ট্যান্ডফোর্ড গ্র্যাজুয়েট স্কুল অফ বিজনেসে বক্তৃতা দিতে গিয়েছিলেন, তখন সেখানকার ছাত্রী ছিলেন লরেন পাওয়েল। প্রসঙ্গত ২২ বছর ইভ ২০২১ সালে সালে স্নাতক হতে চলেছেন, তার আগেই মডেলিং দুনিয়ায় নাম লেখালেন তিনি।

n মডেলিং দুনিয়ায় পা রাখলেন "অ্যাপল''এর সহ প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জবসের মেয়ে ইভ

ইভ একজন সফল অশ্বারোহী। বেশ কয়েকবছর ধরে এই কারণেই শিরোনামে উঠে এসেছেন তিনি। ২৫ বছরের নীচে অশ্বারোহীদের তালিকায় বিশ্বের ৫ জনের মধ্যে নাম রয়েছেন তাঁর।

ইতিমধ্যেই ইভের পোস্ট করা ফটোশ্যুটের ছবি ৮ হাজার জনের থেকেও বেশিজন লাইক করেছেন। কমেন্ট করেছেন খোদ বিল গেটস-এর মেয়ে জেনিফার কে গেটস।

২০১১ সালে স্টিভ জবসের মৃত্যু হয়। তিনি নিউরোএন্ডোক্রাইন টিউমার আক্রান্ত হয়েছিলেন বলে জানা যায়। মৃত্যুর সময় স্টিভের সম্পত্তির পরিমাণ ছিল ১০ মিলিয়ন ডলার।

স্টিভের স্ত্রী পাওয়েল জানিয়েছিলেন, এই সম্পত্তি বিশ্বের সেবায় নিয়েজিত করতে চান। পাওয়েলের কথায়, স্টিভও সেটাই চেয়েছিলেন এবং তাঁদের সন্তানরাও সেকথা জানেন।

Advertisements

Check Also

দ্বিতীয় দফা লকডাউনে যুক্তরাজ্য

কঠিন পরিস্থিতিতে যুক্তরাজ্য। করোনার নতুন ধরনের ছোবল সামলে উঠতে পারছে না দেশটি। প্রতিদিন অর্ধলক্ষাধিক মানুষ …