Advertisements

স্বামীকে ভিডিও দেওয়ায় দেবরকে খুন!

130282613_3597690386967051_4445886546926967066_n স্বামীকে ভিডিও দেওয়ায় দেবরকে খুন!

চট্টগ্রাম মহানগরের একটি বাসায় দেবর মাধব দেবনাথকে হত্যার অভিযোগে আটক ভাবি বীথি দেবনাথ।

চট্টগ্রাম মহানগরের একটি বাসায় পরকীয়ার জেরে খুন হন মাধব দেবনাথ। শ্বাসরোধ করে তাঁকে হত্যার দায় স্বীকার করে আজ রোববার চট্টগ্রামের মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার জাহানের আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন ভাবি বীথি দেবনাথ (২৪)।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আসামি বীথি দেবনাথে গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের নাথবাড়ী। তাঁর স্বামী পিন্টু দেবনাথের বাড়িও একই উপজেলায়। তাঁরা চট্টগ্রাম মহানগরের কোতোয়ালি থানাধীন টেরিবাজার বাইলেইনের আফিমের গলির একটি বাসায় ভাড়া থাকতেন। গত শুক্রবার রাতে ওই বাসায় বীথি দেবনাথের খাটের নিচ থেকে দেবর মাধব দেবনাথের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

Advertisements

এ ঘটনায় চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (ডিসি-দক্ষিণ) এস এম মেহেদী হাসানের তত্ত্বাবধানে দুটি টিম গঠন করে পরিবারের ছয় সদস্যকে থানায় এনে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। একপর্যায়ে বীথি দেবনাথকে আটক করা হয় এবং কৌশলে অভিযান পরিচালনা করে ভিকটিম মাধব দেবনাথের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন ঘটনাস্থলের পেছনের খাল থেকে উদ্ধার করা হয়।

কোতোয়ালি থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন জানান, হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে বীথি বলেছেন, মাধব বীথির স্বামী পিন্টুর ফুফাত ভাই। তিনি তাঁদের বাসায় টাকার বিনিময়ে খাবার খেতেন। এর মধ্যেই বীথি-মাধব পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন, যা শারীরিক সম্পর্ক পর্যন্ত গড়ায়। একসময় আর্থিক বিষয়ে বিবাদে জড়িয়ে বীথির বাসায় আসা বন্ধ হয়ে যায় মাধবের। তাই বীথিকে বাইরে দেখা করার জন্য চাপ দেন মাধব। নতুবা বীথির অশ্লীল ভিডিও ছড়িয়ে দেবে বলে হুমকি দেন। বীথি দেখা করলেও মাধব ফেসবুকের একটি ফেইক আইডি থেকে সেসব ভিডিও স্বামী পিন্টুকে দিয়ে দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বীথি মাধবকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। এরই মধ্যে গত ২ ডিসেম্বর মাধব বীথির বাসায় আসেন। এরপর কৌশলে তাঁর হাত-পা বেঁধে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে খাটের নিচে লুকিয়ে রাখেন বীথি। পরে ঘরের মধ্যে প্রচণ্ড দুর্গন্ধ পেয়ে পিন্টু পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

Advertisements

Check Also

স্ত্রীর পরকীয়ায় স্বামীর সহযোগিতা

বিস্ময়ের শেষ নেই ফরিদার। দুশ্চিন্তা ছিলো হয়তো সংসার আর টিকবে না। বিষয়টি জানার পর ফরিদার …